Friday, December 3, 2021
Google search engine
Homeদুর্ঘটনা খবর(DYFI) নেতা মইদুল মিদ্দার মৃত্যুর আসল কারন বেরিয়ে এলো ময়নাতদন্তের রিপোর্টে

(DYFI) নেতা মইদুল মিদ্দার মৃত্যুর আসল কারন বেরিয়ে এলো ময়নাতদন্তের রিপোর্টে

 

Maidul midda

নবান্ন অভিযানের পর মৃত মইদুল মিদ্দা আগে থেকেই অসুস্থ ছিলেন এমনই দাবি পুলিশের। মৃত ওই ডিওয়াইএফআই নেতার শরীরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ আগেই অসুস্থতার কারণে বিকল হয়ে গিয়েছিল। এর ফলেই  মৃত্যু হয় তাঁর। এই তথ্য উঠে এল ময়নাতদন্তের চূড়ান্ত রিপোর্ট থেকেই  । ফলে, পুলিশ দাবি করেন  নবান্ন অভিযানে পুলিশের লাঠিতে মইদুল মিদ্দার মৃত্যু হয়নি। 

গত ১১ ফেব্রুয়ারি নবান্ন অভিযানের পর  হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন বাঁকুড়া জেলার  ডিওয়াইএফআই (DYFI) নেতা মইদুল মিদ্দা (Maidul Islam Midda)।ফেব্রুয়ারির  ১৫ তারিখে শেক্সপিয়র সরণির একটি নার্সিংহোমে মৃত্যু হয় ওই নেতার । সিপিএম পার্টির  পক্ষ থেকে অভিযোগ আসে , মইদুল কে পুলিশ লাঠি চার্জ করে এবং  শরীরে প্রচুর লাঠির আঘাত লাগে। পুলিশের লাঠিতেই মৃত্যু হয়েছে মইদুলের ।ভিডিও গ্রাফি সহ ওই নেতার ময়না তদন্ত করা হয়  কলকাতা পুলিশ মর্গে। গত সোমবার ময়নাতদন্তের ফাইনাল  রিপোর্ট পুলিশের কাছে এসে পৌঁছায় । সেই রিপোর্টে বলা হয়েছে, মৃতের শরীরে হৃত্‍পিণ্ড, ফুসফুস, কিডনির মতো গুরুত্বপূর্ণ  কিছু অঙ্গপ্রত্যঙ্গ আগের থেকেই অসুস্থতার কারণে বিকল হয়ে পড়েছিল । সেই কারণেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। মৃতের হাঁটুতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। সেই আঘাত পড়ে যাওয়ার কারণে হতে পারে। কিন্তু ওই আঘাত মৃত্যুর কারণ নয় বলে ময়নাতদন্তের রিপোর্টে দাবি চিকিত্‍সকদের।

 লালবাজারের গোয়েন্দা সূত্রে জানা গিয়েছে, মইদুল মিদ্দাকে  শেক্সপিয়র সরণির নার্সিংহোমে ভর্তি করার আগে পার্ক স্ট্রিটের একটি নার্সিংহোমে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। কিন্তু পার্ক স্ট্রিটের নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ পুলিশকে কিছু জানায়নি। তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন লালবাজারের গোয়েন্দারা। এই বিষয়ে  কয়েকজন সিপিএম নেতাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। ময়নাতদন্তের চূড়ান্ত রিপোর্টের জন্য অপেক্ষা করছিল গোয়েন্দা পুলিশ। এই রিপোর্টের উপর নির্ভর করে  পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments